Use of honey in skin care

দাগহীন সুন্দর মসৃণ ত্বক কে নাহ পেতে চায়।  আর তার জন্য মধু অনেক উপকারী। মধুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, অ্যান্টিসেপ্টিক এবং ব্যাকটেরিয়া রোধী উপাদান ব্রণ দূর করতে সাহায্য করে। এটা লোমকূপ উন্মুক্ত করে এবং বিরক্তিকর  Blackheads থেকে দূরে রাখার পাশাপাশি সারাদিন ত্বক আর্দ্র রাখতে সাহায্য করে। হালকা গরম পানিতে এক চামচ মধু মিশিয়ে মুখে ৫ মিনিট ম্যাসাজ করুন এরপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।   

এছাড়াও বিভিন্ন ফেসপ্যাক এর সাথে মধু মিশিয়ে ব্যবহার করতে পারেন মধুতে থাকা বিভিন্ন উপকারী উপাদান ত্বকের কোষ পুনর্গঠনে সাহায্য করে, ত্বক টানটান রাখে। তাই প্রতিদিন এক চামচ মধু খাওয়া  ভালো।

মধু, আলমন্ড অয়েল, গুঁড়া দুধ এবং লেবুর রস পরিমাণমতো মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে মুখে ২০ মিনিট লাগিয়ে ধুয়ে ফেলুন।  এটি ব্রণ দূর করতে  অনেক উপকারী। 

 

ঠোঁটের কোমলতায় মধুর ব্যবহার

মুখের সবচেয়ে বেশি কোমল অঙ্গ হলো ঠোঁট।   তাই ঠোঁটকে সুন্দর রাখতে কিছু বাড়তি যত্ন নিতে হয়। আর ঠোঁটের যত্নে মধুর ব্যবহার অনবদ্য। চিনি ও মধু একসাথে মিশিয়ে এক্সফলিয়েট এর মতো ব্যবহার করা যায়।

 

চুলের যত্নে মধু-

মধু চুলেও ব্যবহারের চুলের অনেক উপকার হয়ে থাকে। মধুর কিছু পুষ্টিগুণ আছে যা চুলের যত্নে মধু অতুলনীয়। তাই নানাভাবে মধু ব্যবহার করে চুল মসৃণ ও সুন্দর করা যায়

২ টেবিল চামচ অলিভ ওয়েল ও ২ টেবিল চামচ মধুর সাথে ১ চা চামচ লেবুর রস মিশিয়ে পুরো মাথায় ভালো করে ম্যাসাজ করে ২০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। এতে চুল ঝরঝরে ও মসৃণ হবে।

Maybelline in Bangladesh

মধু আর অলিভ অয়েল একসাথে মিশিয়ে হালকা করে গরম করে ভালোভাবে মাথায় ম্যাসাজ করুন।নিয়মিত ব্যবহারে ড্রাই হেয়ারের সমস্যা আস্তে আস্তে কমে আসবে।

 

চুলের যত্নে ডিম ও মধু বেশ কার্যকর। ডিম ও মধু একসঙ্গে মিশিয়ে কন্ডিশনার তৈরি করা যায়। চুলে পরিপূর্ণ পুষ্টি যোগাতে এই কন্ডিশনারটি ব্যবহার করতে পারেন।

 

দুটি ডিম, এক টেবিল-চামচ মধু এবং দুই টেবিল-চামচ দুধ ভালো ভাবে মিশিয়ে নিন।মাস্কটি চুলে ৩০ মিনিট লাগিয়ে রেখে শ্যাম্পু করে ফেলুন। রুক্ষ চুলে এই মধুর  মাস্কটি অনেক ভালো কাজ করে।

 

ত্বক ও চুল এর আরও টিপস পেতে ভিজিট করুন এইখানে। 

 

লেখকঃ ইফতিহা জান্নাত ( বিউটি এক্সপার্ট কারনেসিয়া )

তথ্য ও ছবিঃ গুগোল

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *